রেজি নংঃ ডিএ ১৩৬৩ | শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ১১:০৪ পূর্বাহ্ন


প্রকল্পের ষষ্ঠ প্যাকেজের আওতায় ৬৪৯ কোটি ৭৩ লাখ টাকায় চীনের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হেগো এবং বাংলাদেশের মীর আখতার হোসেন লিমিটেড যৌথভাবে ওই অংশের কাজ করবে।

সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী ইবনে আলম হাসান এবং ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি লিউ শিয়াও মে বৃহস্পতিবার রাজধানীর র‌্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেনে এক অনুষ্ঠানে এ চুক্তিতে সই করেন।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের অনুষ্ঠানে দাবি করেন, আওয়ামী লীগ সরকারের সময়ে গত দশ বছরে বাংলাদেশের যোগাযোগ অবকাঠামোয় ‘বৈপ্লবিক পরিবর্তন’ এসেছে,তারা ‘লক্ষ্যের চেয়েও’ এগিয়ে আছেন।

“আমরা যাত্রা শুরু করেছি শেখ হাসিনা সরকারের আমলে। তার আগে কিন্তু অবকাঠামোগত প্রকল্পগুলো একদম পিছিয়ে ছিল। ফ্লাইওভার, পদ্মাসেতু, মেট্রো রেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, কর্ণফুলী টানেল এগুলো একেবারেই নতুন প্রকল্প।

“মাত্র কয়েকবছর আগে এসব উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, এর মধ্যে বেশ কয়েকটির কাজ শেষ হয়েছে। আমাদের পদ্মাসেতু প্রকল্পের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে। কোনোটাই পিছিয়ে নেই।”

এ প্রকল্পের আওতায় টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা থেকে রংপুর পর্যন্ত ১৯৪ দশমিক ৪ কিলোমিটার সড়ক দুই লেইন থেকে চার লেইনে উন্নীত করা হবে। ধীরগতির যানবাহনের জন্য সড়কের দুপাশে দুটি সার্ভিস লেইন থাকবে।

মোট নয়টি প্যাকেজের আওতায় এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। তার মধ্যে প্যাকেজ-৬ এর আওতায় বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম প্রান্ত থেকে সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুল পর্যন্ত ১৯ দশমিক আট কিলোমিটার অংশের সড়ক সম্প্রসারণের কাজটি করবে হেগো-মীর আখতার জেভি।

প্রকল্পের এ অংশে সাতটি সেতু, ১৭টি কালভার্ট, একটি ফ্লাইওভার, পাঁচটি আন্ডারপাস, ১২টি বাস বে, একটি পথচারী ওভারপাস এবং ছয়টি ইন্টারসেকশন নির্মাণ করে দেবে ঠিকাদার কোম্পানি।

আর পুরো প্রকল্পের ১৯৪ দশমিক ৪ কিলোমিটার সড়কে হবে তিনটি ফ্লাইওভার, একটি রেলওয়ে ওভারপাস, ১৬১টি কালভার্ট, ৩৯টি আন্ডারপাস ও ১১টি ফুটওভারব্রিজ।

এ প্রকল্প বাস্তবায়নে ১৯৮ দশমিক ৯৪ একর জমি অধিগ্রহণের প্রয়োজন পড়বে। ১১ হাজার ৮৯৯ কোটি টাকা ব্যয়ে এ প্রকল্পের কাজ আগামী তিন বছরের মধ্যে শেষ হবে বলে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

অন্যদের মধ্যে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম, সাবেক সচিব এম এন এ সিদ্দিক, এডিবির প্রতিনিধি মনমোহন জয়প্রকাশ, প্রকল্প পরিচালক শাহরিয়ার হোসেন, মীর আখতার লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মীর মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

Share on Facebook Share on Twitter

আরও পড়ুন

photo of me

প্রকাশক ও সম্পাদক: এ্যাডঃ শেলী সুলতানা
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: বিএম ফরহাদ হোসেন

প্রকাশক কার্যালয়: ৫৭১, পুর্ব কাজীপাড়া,
মিরপুর, ঢাকা -১২১৬

বার্তা কক্ষ: +৮৮ ০২৯০৩০৬৭৫

ইমেইল : editor@modhusanda24.com
বার্তাকক্ষ : modhusanda.bd@gmail.com

© 2019 All Rights modhusanda24.com

Design & Developed By:

Top